স্বস্তিতে নেই বায়ার্ন মিউনিখ | খেলা

স্বস্তিতে নেই বায়ার্ন মিউনিখ | খেলা

<![CDATA[

চ্যাম্পিয়নস লিগে গ্রুপ পর্বের পাঁচ ম্যাচের পাঁচটিতেই জিতেছে লেওয়ানডোস্কির বায়ার্ন। শুধু তাই নয়, লিগে শীর্ষ স্থান দখল করে আছে জার্মান জায়ান্টরা। তবুও দলে নেই স্বস্তি। করোনাভাইরাসের কারণে দলের মূল খেলোয়াড়রা খেলতে পারছেন না অনেক গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। এমনকি দল সাঁজাতেও হিমশিম খাচ্ছে বায়ার্ন বস।

দলে ইনজুরির সাথে কোভিডে আক্রান্ত খেলোয়াড় রয়েছে। আগে থেকেই কোয়ারেন্টিনে থাকা দলটির মিডফিল্ডার জসুয়া কিমিখ ও ফরোয়ার্ড এরিক মাক্সিম চুপো-মোটিং কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছেন।

ক্লাবের ওয়েবসাইটে বুধবার (২৪ নভেম্বর) দুটি পৃথক বিবৃতিতে কিমিখ ও চুপো-মোটিংয়ের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর জানায় জার্মান চ্যাম্পিয়নরা। 

চলতি মাসে আন্তর্জাতিক বিরতিতে জার্মানি দলে কোভিড-১৯ আক্রান্ত সতীর্থের সংস্পর্শে আসায় কিমিখসহ তিনজনকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছিল। এরপর গত রোববার (২১ নভেম্বর) কোভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসায় কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয় সের্গে গেনাব্রি, জামাল মুসিয়ালা, মিকায়েল কুইজন্স ও চুপো-মোটিংকে।

আরও পড়ুন: ‘মাঠের বাইরে কি হচ্ছে সেটা নিয়ে ভাবছে না বেনজেমা’ 

অবস্থা এমন দাঁড়িয়েছে, সামনে দল সাজাতেই হিমশিম খেতে হতে পারে কোচ ইউলিয়ান নাগেলসমানকে। গত মঙ্গলবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দিনামো কিয়েভের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় পাওয়া ম্যাচেই যেমন বায়ার্নের বেঞ্চে ছিলেন ২ গোলরক্ষক বাদে মাত্র ৪ জন খেলোয়াড়।

সদ্য করোনাভাইরাস থেকে সেরে ওঠা ডিফেন্ডার নিকলাস সুলে এখনও দলে ফেরেননি। আরেক ডিফেন্ডার ইয়োসিপ স্তানিসিচ আইসোলেশনে আছেন গত সপ্তাহে কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার পর থেকে।

এদিকে কয়েকজন খেলোয়াড় এখনও টিকা নিতে অস্বীকৃতি জানানোয় সমালোচনার মুখেও আছে বায়ার্ন কোচ। এই খেলোয়াড়দের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন কিমিখ। তার শঙ্কা, টিকার দীর্ঘমেয়াদি প্রতিক্রিয়া আছে।

চুপো-মোটিং টিকা নিয়েছেন কি-না সেটা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে জার্মান গণমাধ্যমের খবর, তিনিও টিকা নেননি। আসছে ৯ ডিসেম্বর নিজেদের মাঠে স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনাকে আতিথ্য দেবে বায়ার্ন। 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *