সুখবর পেলেন জোকোভিচ | খেলা

সুখবর পেলেন জোকোভিচ | খেলা

<![CDATA[

জোকোভিচের আপিল শুনানি পিছিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

সোমবারের পরিবর্তে আগামী বুধবার শুনানির দিন ধার্য করার চেষ্টা করেছিল দেশটির কর্তৃপক্ষ । কিন্তু তা আমলে নেননি বিচারক। শেষ পর্যন্ত সোমবারই (১০ জানুয়ারি) হচ্ছে শুনানি। 

এদিকে, জোকোভিচের মুক্তির দাবিতে চলমান বিক্ষোভে যোগ দিয়েছেন অভিবাসন দফতরে থাকা শরণার্থীরা। সার্বিয়ান তারকার কষ্টের সঙ্গে নিজেদের নানা দুর্ভোগ-দুর্দশার কথা ব্যানার, ফেস্টুন ও প্ল্যাকার্ডে তুলে ধরেন তারা।

আরও পড়ুন : জোকোভিচের সঙ্গে কয়েদির মতো আচরণ করছে অস্ট্রেলিয়া

অভিবাসন হেফাজত দফতরের সামনে ভিড় কমছেই না। আন্দোলন চালিয়েই যাচ্ছেন জোকোভিচ সমর্থকরা। নতুন করে সেখানে যোগ দেন অস্ট্রেলিয়ায় রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থী ও শরণার্থীরা। জোকোর মুক্তির দাবির সঙ্গে নিজেদের নানা সমস্যার কথাও তুলে ধরেন তারা।

গেল বুধবার ভিসা বাতিলের পর থেকেই অভিবাসন হেফাজত দফতরে আছেন জোকো। তার মুক্তি দাবিতে চলছে আন্দোলন। হেফাজত দফতরে নানা রকম সমস্যায় পড়তে হয় শরণার্থীদের। তাদের কষ্টের কথা অনেক সময়েই কানে পৌঁছায় না সবার। তাই বিক্ষোভ চলাকালীন বন্দিদশার নানা বিষয় নিয়ে মুখ খোলেন তারা।

আগামী ১৭ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে বছরের প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। জোকোভিচ খেলতে পারবেন কি পারবেন না, সেটা এখনো নিশ্চিত হয়নি। তবে, অস্ট্রেলিয়ায় পৌঁছে প্রথমবারের মত ইতিবাচক কোনো খবর পেয়েছেন জোকোভিচ।

ভিসা বাতিলের পরই আসরে অংশ নিতে আদালতে নথি পেশ করেন তার আইনজীবীরা। সেখানে চিকিৎসা ছাড় নিয়ে আসরে অংশ নেওয়ার অনুমতি চেয়েছেন তিনি। চিকিৎসা ছাড়ের কারণ হিসেবে জোকোভিচের আইনজীবীরা জানিয়েছেন, গেল ১৬ ডিসেম্বর করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন জোকো। এরপর কেটে গেছে ১৪ দিন। এরপর তার শরীরে জ্বর বা শ্বাসকষ্টের কোনো লক্ষণও পাওয়া যায়নি।

গেল পহেলা জানুয়ারি জোকোকে চিকিৎসার ছাড় দিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। চিকিৎসা ছাড়ের শর্ত অনুযায়ী মাত্রই করোনা থেকে মুক্তি পেয়েছেন জোকো। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলতে তার আর কোনো বাধা থাকার কথা নয়। জোকোভিচের আপিলের শুনানি পিছিয়ে দিতে বেশ চেষ্টা চালিয়েছে আস্ট্রেলিয়া সরকার। সোমবার থেকে পিছিয়ে বুধবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ড্র শেষে শুনানির দিন ধার্য করতে চেয়েছিল তারা। তবে জোকোভিচের আপিলের শুনানি পিছিযে দেওয়ার আস্ট্রেলিয়ার সরকারের আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন বিচারক। তারা জানিয়েছেন নির্ধারিত সময়েই হবে শুনানি।

আরও পড়ুন : টিকা নেননি, তাই জোকোভিচকে ঢুকতে দিল না অস্ট্রেলিয়া

তবে জোকোভিচের অস্ট্রেলিয়ায় আবারও ভিসা পাওয়ার কোনো সম্ভাবনা দেখছেন না অভিবাসন বিষয়ক আইনজীবী ক্রিইস্টোফার লিভিংস্টন। তিনি বলেন, আমি মনে করি না জোকোভিচ শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার ভিসা পাবে। কারণ এখানে আইন তার নিজস্ব গতিতে চলে। রাষ্ট্রের নিরাপত্তা সবার আগে গুরুত্ব দেওয়া হয়। জোকোভিচ তারকা খেলোয়াড় হলেও অস্ট্রেলিয়ায় তা বিবেচনার সুযোগ নেই।

জোকোর করোনা পজিটিভের খবরে নতুন করে দেখা দিয়েছে বিপত্তি। কারণ ১৬ ডিসেম্বর যে সময়ে করোনা পজিটিভ হন জোকো। সে সময় তিনিই বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন। মাস্ক ছাড়া ছবিও তুলেছিলেন ক্ষুদে সমর্থকদের সঙ্গে। তবে, বিতর্ক যতই ডালপালা মেলুক না কেন সমর্থকদের আশা শেষ পর্যন্ত জয়ী হবেন জোকো।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *