সমাজ ও পরিবার থেকে মেয়েদের খেলাধুলায় উৎসাহ দিতে হবে | বাংলাদেশ

সমাজ ও পরিবার থেকে মেয়েদের খেলাধুলায় উৎসাহ দিতে হবে | বাংলাদেশ

<![CDATA[

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, বাংলাদেশের অনুর্ধ-১৯ নারী ফুটবল দল সাফ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। মেয়েরা চোখে আঙুলের দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে যে তারা ছেলেদের চেয়ে কোনভাবেই পিছিয়ে নেই। সমাজ ও পরিবার থেকে মেয়েদের খেলায় অংশ নিতে উৎসাহ দিতে হবে।

জেলা ও উপজেলা পর্যায় বিভিন্ন প্রতিযোগিতার আয়োজন করলে ভালমানের খেলোয়ার তৈরি হবে। তারা দেশে বিদেশে সুনাম বয়ে আনতে পারবে। এজন্য স্কুল, কলেজ ও স্থানীয় পর্যায়ে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও টুর্নামেন্টের আয়োজন করতে হবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) মুনিসগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় মধ্যপাড়ায় নিঃস্বার্থ সামাজিক সংগঠন আয়োজিত মধ্যপাড়া চ্যাম্পিয়ন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২১ ফাইনাল খেলায় পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, খেলাধুলায় অংশগ্রহণ তরুণ সমাজের অবক্ষয় রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। যার মাধ্যমে যুবসমাজ সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠে ও তাদের নেতৃত্বের বিকাশ ঘটে। যা তাদেরকে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তি থেকে  মুক্ত রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেন, বাংলাদেশ সাহায্য নির্ভর দেশ থেকে স্বনির্ভর দেশে পরিণত হয়েছে। উন্নয়নের দশটি সূচকে বাংলাদেশ পাকিস্তানকে পেছনে ফেলে এগিয়ে যাচ্ছে। সারা বিশ্ব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ম্যাজিক দেখে অবাক হয়ে গেছে।

আরও পড়ুন: অফসাইড বিতর্ক এড়াতে নতুন প্রযুক্তি আনছে ফিফা

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা সদ্য স্বাধীন দেশে সকল ধরণের খেলার উন্নয়ন ও অবকাঠামো নির্মাণ অগ্রগামী ভূমিকা পালন করেছেন। তিনি ফুটবল খেলতে ভালোবাসতেন ও স্কুল ফুটবল টিমের ক্যাপ্টেন ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্রীড়ার উন্নয়নে বিভিন্ন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন। সরকার ২০১০ সাল হতে প্রতিবছর ‌‍‌‌‌‌‌’বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্ট‍‌’ এবং ২০১১ সাল হতে ‘বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্ট‌‍’ আয়োজন করছে।

মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে মধ্যপাড়া চ্যাম্পিয়ন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০২১ এর উদ্বোধক ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহি বি. চৌধুরী। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক কে. এম. তারিকুল ইসলাম। এসময় সিরাজদিখান উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মহিউদ্দিন আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ ফয়েজ আহমেদসহ ক্রীড়াসংঘটক ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ফাইনাল খেলায় অংশগ্রহণকারী ফিউচার প্লান স্পোর্টিং ক্লাব ট্রাইব্রেকারে ৪-১ গোলে  গ্রীন ওয়েল ফেয়ার সেন্টার টিমকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়। প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা খেলা শেষে চ্যাম্পিয়ন দলের ক্যাপ্টেনের হাতে ট্রফি ও এক লাখ টাকার প্রাইজ মানি তুলে দেন।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *