সবজি-মুরগিতে স্বস্তি, দাম বেড়েছে মাছের | বাণিজ্য

সবজি-মুরগিতে স্বস্তি, দাম বেড়েছে মাছের | বাণিজ্য

<![CDATA[

নিত্যপণ্যের বাজারে এসে অনেক দিন পর স্বস্তির কথা জানালেন ক্রেতারা। শুক্রবার (১২ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে গিয়ে তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল মাছ, মুরগি ও শাক-সবজির দাম তুলনামূলক কমেছে।

প্রতিটি দোকানেই রয়েছে নানা প্রজাতির মাছের পর্যাপ্ত সরবরাহ। তবে বিক্রেতারা জানান, শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে যে বাড়তি চাহিদা থাকে সেই তুলনায় কিছুটা কম। তাই খুব বেশি না হলেও দাম কিছুটা বাড়তি। কেজিতে ২০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে সব ধরনের মাছের দাম।

শুক্রবার সকালে এ বাজারে তেলাপিয়া মাছ বিক্রি হয়েছে ১৬০ থেকে ১৭০ টাকায়, পাঙাস ১১০-১২০ টাকার মধ্যে। চাষের পাবদা বেচাকেনা হয়েছে ৩২০ টাকা কেজি দরে, তাজা শোল মাছের কেজি ২৬০-২৮০ টাকা, বড় আকারের বোয়াল বিক্রি হয়েছে ৩২০ টাকা কেজি দরে, কেজি ওজনের রুই ১৮০ টাকা, কাতলের দাম ১৬০ টাকা, গলদার কেজি ৬৩০ টাকা, আইড় ৪৫০-৫০০ টাকা, বাঘাইড়ের কেজি পড়েছে ৬৫০ টাকা।

মাছের ক্রেতারা কিন্তু জানালেন বেশ স্বস্তির কথা। এমনকি তাদের পর্যবেক্ষণ, গত শুক্রবারের তুলনায় আজকের বাজার দর কমতির দিকে। এক ক্রেতা জানালেন, গত শুক্রবারের চেয়ে আজ তিনি অন্তত ৫০ টাকা কমে কিনেছে রূপচাঁদা। আরেকজনের হিসাব, মাঝারি আকারের একটি রুই গত শুক্রবার তিনি কিনেছেন ৩৮০ টাকা কেজি দরে আজ কিনেছেন ৩৬০ টাকা কেজি দরে। জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে পরিবহন খরচ বাড়ার পর মাছের বাজারে যেভাবে প্রভাব পড়ার কথা তারা ভেবেছিলেন; বাজারে এসে তা পাননি বলে জানান তারা।

মুরগির বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেল, বেশ দ্রুতই কমছে দাম। গত শুক্রবার এককেজি ব্রয়লার বিক্রি হয়েছে ১৮০-২০০ টাকার মধ্যে; আজ তা বিক্রি হচ্ছে ১৬০-১৭০ টাকায়। সোনালির দামও কমেছে কেজিতে ২০ থেকে ৪০ টাকা। আজকের বাজার ২৮০-৩০০ টাকা।

দাম কমের কারণ হিসেবে বিক্রেতারা জানান, মাঝখানে খামারে ব্রয়লার পালন কম হয়েছে। তাই দাম বাড়ছিল। এখন আবার খামারে পালন ও বাজারে সরবরাহ বাড়তে শুরু করেছে তাই দামও কমতে শুরু করেছে। তবে ক্রেতাদের প্রত্যাশা আগের মতো আবার ১২০-৩০ টাকায় নেমে আসুক ব্রয়লারের দাম।

সবজির বাজারে এসে বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বললে প্রথমেই তারা জানান, কাঁচামাল তো এখন একদাম একটু পর আরেক দাম। তবে তারা কাঁচামাল ধরে রাখতে পারেন না। শেষ দিকে কমে হলেও তাদের বিক্রি করে দিতে হয়। অর্থাৎ বেশিরভাগ দিনই সকালের চেয়ে বিকেল-সন্ধ্যার দিকে দাম খানিকটা পড়ে যায়।

আরও পড়ুন- আখাউড়া স্থলবন্দরের দুরবস্থা, প্রশাসন দুষল বিএসএফকে

তাদের দেওয়া তথ্যে জানা গেল, সপ্তাহ ব্যবধানে অর্ধেকে নেমেছে শিমের দাম। আজ বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা কেজি দরে। কাঁচামরিচের দামও কমেছে কেজিতে ৩০ থেকে ৪০ টাকা। বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকার মধ্যে। তবে বেগুনের দাম কিছুটা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকায়। কয়েকজন ক্রেতার সঙ্গে আলাপ করে জানা গেল তারাও কিছুটা কমেই আজ বাজার করতে পারছেন। ৭০ টাকা জোড়ার কপি আজ এক ক্রেতা কিনেছেন ৬০ টাকায়। তবে তাদের দাবি, সরবরাহ স্বাভাবিক থাকায় দাম আরও কমার কথা।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *