শিরোপার লড়াইয়ে টস জিতল অস্ট্রেলিয়া | খেলা

শিরোপার লড়াইয়ে টস জিতল অস্ট্রেলিয়া | খেলা

<![CDATA[

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে দুই প্রতিবেশী দেশ অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের লড়াই রোববার (১৪ নভেম্বর)। দুবাইয়ে টস জিতে ফিল্ডিং নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। অর্থাৎ টস হেরে ব্যাটিংয়ে নিউজিল্যান্ড।

দু’দলই এখন পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপার স্বাদ পায়নি। তাই এবার নতুন চ্যাম্পিয়ন পাচ্ছে ক্রিকেট বিশ্ব।

ওয়ানডে ক্রিকেটে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া টেস্টেও ইতিহাসের অন্যতম সেরা দল। যদিও টি-টোয়েন্টিতে বিশ্বসেরার মুকুট পরা হয়নি কখনো। অন্যদিকে আগের ছয় আসরে কখনোই ফাইনালে উঠতে না পারা নিউজিল্যান্ড এবার প্রথমবার টি-টোয়েন্টির ফাইনালে উঠেছে।

ব্যাটিং, বোলিং আর ফিল্ডিং মিলিয়ে বিশ্বের অন্যতম সেরা দুই দল আজ শিরোপাযুদ্ধে অবতীর্ণ। সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ড হারিয়েছে এ সংস্করণের শীর্ষ র‌্যাংকিংধারী ইংল্যান্ডকে আর অস্ট্রেলিয়া হারিয়েছে র‌্যাঙ্কিংয়ে দুইয়ে থাকা পাকিস্তানকে।

সুপার টুয়েলভে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৫ উইকেটে হারিয়ে শুরু। দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অ্যারন ফিঞ্চদের জয় ৭ উইকেটে। তৃতীয় ম্যাচে এসে হোঁচট খায় অস্ট্রেলিয়া। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ডের কাছে ৮ উইকেটে হেরে যায় ফিঞ্চ, ওয়ার্নাররা।

আরও পড়ুন : দুঃসংবাদ পেলেন তামিম, যাবেন লন্ডন

বাংলাদেশকে ৮ উইকেটে উড়িয়ে দিয়ে আবারও জয়ে ফেরা। সুপার টুয়েলভের শেষ ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অজিদের কাছে হারে ৮ উইকেটে। সেমিইনালেতো পাকিস্তানের স্বপ্নজাত্রা থামিয়ে নাটকীয় জয় পায় অস্ট্রেলিয়া। লক্ষ্য এখন টি-টোয়েন্টির অধরা শিরোপা।

অন্যদিকে, বিশ্ব ক্রিকেটে নিউজিল্যান্ড কতটা অপ্রতিরোধ্য সেটা গেল তিন বছরের পারফরমেন্সে চোখ রাখলেই বোঝা যায়। ২০১৯ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনালে স্বপ্নভঙ্গের পর, এ বছর টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালেও উঠেছিল ব্লাক ক্যাপস। আর এ বছরই তৃতীয়বারের মতো কোনো আসরের ফাইনালে পা রাখল নিউজিল্যান্ড।

যদিও বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে উইলিয়ামসনদের শুরুটা হয়েছিল হার দিয়ে। পাকিস্তানের কাছে ৫ উইকেটের হারে শুরু হয় তাদের। ভারতকে ৮ উইকেটে উড়িয়ে দিয়ে জয়ে ফেরে তারা। পরের তিন ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের শিকার স্কটল্যান্ড, নামিবিয়া ও আফগানিস্তান। সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকে ৫ উইকেটে হারিয়ে ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনালে হারের শোধ নেয় তারা। লক্ষ্য এখন দুবাই জয়।

এখন পর্যন্ত টি-টোয়েন্টিতে তাসমেনিয়ার এই দুই দেশের দেখা হয়েছে ১৪ বার, যেখানে ৯ জয় নিয়ে এগিয়ে অজিরাই। নিউজিল্যান্ডের জয় ৫টিতে। বিশ্বকাপে এই দুই দলের একবার দেখা হয়েছিল। ২০১৬ সালে সুপার টেনে ৮ রানের জয় পেয়েছিল কিউইরা।

নিউজিল্যান্ড একাদশ
মার্টিন গাপটিল, গ্লেন ফিলিপস, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), টিম শেইফার্ট, ড্যারেল মিচেল, জেমস নিশাম, অ্যাডাম মিলানে মিচেল স্যান্টনার, টিম সাউদি, ট্রেন্ট বোল্ট, ইশ সোধি।

অস্ট্রেলিয়া একাদশ

ডেভিড ওয়ার্নার, অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), মিচেল মার্শ, স্টিভ স্মিথ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মার্কাস স্টয়নিস, ম্যাথু ওয়েড, প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, অ্যাডাম জাম্পা এবং জস হ্যাজলউড

 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *