মুক্তি পেয়ে আকাশে ডানা মেলল ৭০০ পাখি | বাংলাদেশ

মুক্তি পেয়ে আকাশে ডানা মেলল ৭০০ পাখি | বাংলাদেশ

<![CDATA[

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে পুলিশের সহায়তায় ৭ শতাধিক বন্দী শালিককে অবমুক্ত করা হয়েছে। রোববার (২ জানুয়ারি) বিকেলে পাখিগুলোকে মোল্লাহাট থানা ও রাজপাট এলাকায় প্রকৃতিতে অবমুক্ত করে মোল্লাহাট থানা পুলিশ।

এর আগে শনিবার (১ জানুয়ারি) রাত ও রোববার (২ জানুয়ারি) ভোরে পুলিশ মোল্লাহাট উপজেলার গাওলা ইউনিয়নের রাজপাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুটি বাড়ি থেকে ৭ শতাধিক শালিক পাখি উদ্ধার করে।

শিকার করা এসব পাখি আটকে খামার গড়ে তুলেছিলেন এক ব্যক্তি। বিভিন্ন কৌশলে ধরা শালিকগুলোকে খুলনা ও আশাপাশের এলাকায় বিক্রি করতেন তিনি।

আরও পড়ুন: নিজেকে বাঁচাতে গগনবিদারী চিৎকার করেছিল হাতিটি

স্থানীয়রা জানান, এই অঞ্চলে শালিক পাখি তেমন কেউ খায় না। তবে বিভিন্ন হোটেলে কোয়েল বলে এই শালিকের মাংস খাওয়ানো হয়। এছাড়া সৌখিনভাবে বাসা-বাড়িতে শালিক পালনের প্রচলন রয়েছে।

মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোমেন দাশ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি, গাওলা ইউনিয়নের একটি গ্রামে বিভিন্ন ধরনের পাখি আটকে রাখা হয়েছে। খবর পেয়ে গভীর রাতে আমরা অভিযানে যাই। সে সময় রাজপাট এলাকার জনৈক কাকা মিয়ার বাড়ির থেকে ৫ শতাধিক এবং  পার্শ্ববর্তী অন্য একটি বাড়ি থেকে আরও ২ শতাধিক শালিক পাখি উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন : শেরপুরে হাতি হত্যা: দুই আসামি কারাগারে

উদ্ধার হওয়া শালিক পাখিগুলো খুলনাসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করা হতো জানিয়ে তিনি আরও বলেন, শালিকগুলো স্থানীয় বিভিন্ন বিল-বাওড় থেকে শিকার করা হয়। অভিযান টের পেয়ে শালিকগুলো আটকে রাখা ব্যক্তি পালিয়ে যান।

বাংলাদেশ বন বিভাগের বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা এবং তরুণ বন্যপ্রাণী গবেষক জোহরা মিলা জানান, বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন-২০১২ অনুযায়ী পাখি নিধনের সর্বোচ্চ শাস্তি এক বছর জেল, এক লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডও হতে পারে। একই অপরাধ ফের করলে শাস্তি ও জরিমানা দ্বিগুণের বিধানও রয়েছে।

আরও পড়ুন : হাতি নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের সময় এখনই

পাখি শিকারিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এছাড়া কোনো ব্যক্তি পরিযায়ী পাখির মাংস ও দেহের অংশ সংগ্রহ বা দখলে রাখলে অথবা বেচা-কেনা করলে সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড ও সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান রয়েছে।
 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *