মিয়ানমার সেনার বিরুদ্ধে আরও হত্যার অভিযোগ | আন্তর্জাতিক

মিয়ানমার সেনার বিরুদ্ধে আরও হত্যার অভিযোগ | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

মিয়ানমারে সাধারণ মানুষকে হত্যার পর পুড়িয়ে ফেলার রেশ কাটতে না কাটতেই দেশটির সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে ২০ বেসামরিক নাগরিককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাতে দ্য গার্ডিয়ান জানায়, ডিসেম্বরের শেষ দিকে বিদ্রোহী অধ্যুষিত সাগাইং অঞ্চলে ব্যাপক দমনপীড়ন চালায় মিয়ানমার সেনাবাহিনী। পুড়িয়ে দেওয়া হয় অন্তত ৪০টি ঘরবাড়ি। সবশেষ দেশটির বিদ্রোহী অধ্যুষিত সাগাইং অঞ্চলে তাণ্ডব চালায় তারা। এতে বেশ কয়েকজন মানুষ হতাহত হন। বাদ যাননি বৃদ্ধরাও। ৬০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধসহ বেশ কয়েকজন বেসামরিক ব্যক্তি মিয়ানমার সেনাদের হত্যাকাণ্ডের শিকার হন।

স্থানীয় গণমাধ্যম বলছে, এর আগেও অঞ্চলটিতে কয়েক দফা বিমান হামলাসহ নারকীয় হত্যাযজ্ঞ চালানো হলেও দেশটির সেনাবাহিনীর সিরিজ গণহত্যার সবশেষ ঘটনা এটি।

আরও পড়ুন: বিক্ষোভের মুখে পদত্যাগে বাধ্য কাজাখস্তান সরকার

এর আগে বড়দিনের আগ মুহূর্তে কায়াহ প্রদেশে শিশুসহ ৩৫ বেসামরিক মানুষকে হত্যার পর মরদেহ পুড়িয়ে ফেলে মিয়ানমার সেনারা। জাতিসংঘসহ মানবাধিকার সংগঠন ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের তীব্র নিন্দার মধ্যেই সাগাইং অঞ্চলে গণহত্যা চালালো সামরিক সরকার।

গেল বছরের ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকে বিভিন্ন অঞ্চলে জান্তাবিরোধী প্রতিরোধ অব্যাহত রয়েছে। গেল মাসে কারেন প্রদেশেও বিদ্রোহীদের সঙ্গে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সেনাবাহিনীর অত্যাচার নির্যাতনের মুখে এরইমধ্যে সীমান্তবর্তী অঞ্চলে ভিড় করতে শুরু করেছেন দেশটির সাধারণ মানুষ।

আরও পড়ুন: এবার মিয়ানমারে গণহত্যার ওপর প্রতিবেদন প্রকাশ মার্কিন সংবাদ সংস্থার

২০১৭ সালে রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের মুখে ৭ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। এবার থাইল্যান্ড সীমান্তে জড়ো হচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। যদিও সীমান্তে কঠোর অবস্থানের কথা জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট দেশগুলো।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *