মাছের সরবারহ বাড়ায়, দাম তুলনামূলক কম | বাণিজ্য

মাছের সরবারহ বাড়ায়, দাম তুলনামূলক কম | বাণিজ্য

<![CDATA[

বাগেরহাটে সব ধরনের সামুদ্রিক মাছের সরবরাহ বেড়েছে। শীতের শুরুতেই সাগর থেকে সরাসরি ট্রলারে করে শহরে আসছে ইলিশসহ নানা সামুদ্রিক মাছ। দামও আগের তুলনায় কম।

কাকডাকা ভোর থেকেই আশপাশের জেলা থেকে ক্রেতা ও পাইকাররা ভিড় করেন বাগেরহাট শহরের দড়াটানা নদীর তীরে কেবি মাছ বাজারে।

দিন দিন বাড়ছে সামুদ্রিক ইলিশসহ নানা প্রজাতির মাছের সরবরাহ। সাগর থেকে সরাসরি এসে বাজারের ঘাটে নোঙর করে মাছ ধরা ট্রলারগুলো। সেখান থেকে মাছ নিয়ে শ্রমিকরা ঝুড়িতে করে বাজারে বিক্রি করেন। সামুদ্রিক এসব মাছের মধ্যে রয়েছে মেদ, ঢেলা, চ্যালা, জাবা, পোয়া, লইট্যা, কলম্বো, চন্দনা, টেংরা ইত্যাদি।

প্রতি কেজি ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৭০০ থেকে ৮০০ টাকায়। এ ছাড়া জাবা ও পোয়াসহ অন্যান্য মাছ ১০০ থেকে ২৫০ টাকা পর্যন্ত কেজি দরে পাওয়া যাচ্ছে। সব মাছই ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষমতার নাগালে।

আরও পড়ুন: মোংলা বন্দরে বিদেশি মদ উদ্ধার

বাজারে মাছ কিনতে আসা ক্রেতা ও বিক্রেতারা বলেছেন, ভোর সাড়ে ৫টায় বেচাকেনা শুরু হয়। বাজার মোটামুটি খারাপ না। বাজার ভালো আছে। মাছ মোটামুটি ভালো আসছে। ইলিশসহ বিভিন্ন প্রকারের মাছ রয়েছে। ১ কেজি ওজনের মাছগুলো ৮০০-৯০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। মাছের দাম খুবই কম এবং ক্রেতার ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা।

আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় বর্তমানে মাছের বাজার সরগরম বলে জানিয়েছেন মৎস্যজীবীরা। উপকূলীয় মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি শেখ ইদ্রিস আলী বলেছেন, জেলেরা মাছ নিয়ে এখানে আসেন। এখানে প্রচুর পরিমাণে মাছ হয়। বিশেষ করে যদি আবহওয়া ও সাগর অনুকূলে থাকে।

সামুদ্রিক মাছের এই কেবি বাজারটি এখানে গড়ে ওঠে ১৯৮৪ সালে। বাজারের পরিধি আরও বাড়ানোর দাবি ক্রেতা-বিক্রেতা সবার।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *