বাংলাদেশে প্রথম ‘এসএজি’ পুরস্কার পেল ডিপিডিসি | বাংলাদেশ

বাংলাদেশে প্রথম ‘এসএজি’ পুরস্কার পেল ডিপিডিসি | বাংলাদেশ

<![CDATA[

প্রথমবারের মতো কোনো বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান হিসেবে ‘এসএজি’ পুরস্কার অর্জন করেছে বিদ্যুৎ বিতরণকারী প্রতিষ্ঠান ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (ডিপিডিসি)।

ভৌগোলিক তথ্য ব্যবস্থা বা জিওগ্রাফিক ইনফরমেশন সিস্টেম (জিআইএস) প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে বিদ্যুৎ খাতে অধিক দক্ষতা ও উৎপাদনশীলতা অর্জনের লক্ষ্যে জিওস্পেশাল টেকনোলোজির ব্যতিক্রমী ও উদ্ভাবনী প্রয়োগের স্বীকৃতিস্বরূপ যুক্তরাষ্ট্রের পরিবেশ প্রযুক্তি ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ইনভারমেন্ট সিস্টেম রিসার্স ইনস্টিটিউট (ইএসআরআই) ঘোষিত ২০২১ সালের স্পেশাল অ্যাচিভমেন্ট ইন জিআইএস (এসএজি) অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছে ডিপিডিসি।

 

এ বছর প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বব্যাপী তাদের এক লাখ গ্রাহকের মধ্যে ৮০টি প্রতিষ্ঠানকে বিশেষ অর্জনের স্বীকৃতি হিসেবে এই পুরস্কার প্রদান করেছে। বার্ষিক ইএসআরআই ইউজার কনফারেন্সে বিশেষ এই অর্জনকারীর তালিকায় বাংলাদেশের এই সেবাদানকারী (ডিপিডিসি) প্রতিষ্ঠানটি ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে।

গত ২৮ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) বাংলাদেশ সরকারের বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ (বিপু) ডিপিডিসি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী বিকাশ দেওয়ানের হাতে ‘এসএজি’ অ্যাওয়ার্ড (সনদ ও ক্রেস্ট) তুলে দেন।

বৈশ্বিক এই পুরস্কার বিজয়ীদের মধ্যে বাংলাদেশের বিদ্যুতের খাতের এই প্রতিষ্ঠানের (ডিপিডিসি) উপরে রয়েছে আলজেরিয়ার তেল ও গ্যাস খাতের প্রতিষ্ঠান সোনাট্রাচ, আর্জেন্টিনার বিদ্যুৎ ও গ্যাস খাতের প্রতিষ্ঠান গ্যাসনর, অস্ট্রেলিয়ার জনস্বাস্থ্য বিষয়ক প্রতিষ্ঠান এআইএইচডব্লিউ, একই দেশের সুপেয় পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন বিষয়ক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান নর্থ ইস্ট ওয়াটার এবং অস্ট্রেলিয়ার বিদ্যুৎ ও জ্বালানিখাতের আরেক প্রতিষ্ঠান ডরিস।

এসএজি-অ্যাওয়ার্ড অর্জনের কারণ হিসেবে ইএসআরআই উল্লেখ করেছে, ডিপিডিসি জিআইএস ভিত্তিক ডিস্ট্রিবিউশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (জিডিএমএস) প্রকল্পের অধীন আর্কজিআইএস প্রযুক্তি প্রয়োগ করে গ্রাহকের ধরণ ও বিদ্যুৎ সঞ্চালন ব্যবস্থার (নেটওয়ার্ক) বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণ করে একটি আধুনিক পরিচলন ও বিতরণ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে। যেখানে গ্রাহকের চাহিদা ও ধরন অনুযায়ী সঠিক বিদ্যুৎ সেবা প্রদান লক্ষ্যে উচ্চ, মাঝারি ও নিম্ন ভোল্টেজের (১৩২ কেভি, ৩৩ কেভি, ১১ কেভি) পরিচলন ও বিতরণ ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে। এর ফলে উচ্চ ও নিম্ন ভোল্টেজ সংক্রান্ত জটিলতা কমে যাওয়ার সাথে সাথে কারিগরি ও আর্থিক ক্ষতির পরিমাণও অনেকাংশ হ্রাস পেয়েছে বলেও বিশেষ এই অ্যাওয়ার্ড অর্জনের কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: দেশে প্রথম বৈদ্যুতিক যানবাহন, সিন্ডিকেট ঋণের ব্যবস্থা করল ৫ প্রতিষ্ঠান

এসএজি-অ্যাওয়ার্ড অর্জন প্রসঙ্গে ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের (ডিপিডিসি) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী বিকাশ দেওয়ান সময় সংবাদকে বলেন, এসএজি-অ্যাওয়ার্ড অর্জন শুধুমাত্র বিদ্যুৎ বিতরণকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে ডিপিডিসিরই নয়, এটা বাংলাদেশেরও গর্ব। কারণ প্রতিষ্ঠার পর থেকে ইএসআরআই (ইনভারমেন্ট সিস্টেম রিসার্স ইনস্টিটিউট) যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে কোন প্রতিষ্ঠানকে কখনো এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান করেনি। গত দুবছর ধরে তারা গ্লোবালি এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান করছে। সেখানে এবছর (২০২১) বিশ্বের প্রায় এক লাখ গ্রাহকের মধ্যে বাংলাদেশের প্রথম কোন প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমরা এই অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছি। যেখানে আমাদের অবস্থান বিশ্বের ৮০টি দেশের মধ্যে ষষ্ঠ। বিদ্যুৎ খাতের প্রতিষ্ঠান হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার পরেই আমাদের অবস্থান।

বিকাশ দেওয়ান বলেন, জিআইএস প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে আমরা আধুনিক ও প্রযুক্তি নির্ভর একটি বিতরণ ব্যবস্থা তৈরি করতে সক্ষম হয়েছি। এর ফলে এখন আমরা বিদ্যুতের অপারেশনের ক্ষেত্রে দ্রুত সময়ের মধ্যে বিতরণ ব্যবস্থার ত্রুটি-বিচ্যুতি সনাক্ত ও সমাধান করতে পারছি। এখন গ্রাহকের অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা বিদ্যুতের লোডশেডিং বা অন্যান্য ত্রুটি দ্রুত সনাক্ত করতে পারছি। এছাড়া আমরা অপারেশন সেন্টার থেকেই কোথাও ট্রান্সফরমার নষ্ট হলে তা দেখতে পারছি। বিতরণ ব্যবস্থার কোথাও লো-ভোল্টেজ দেখা দিলে তা সনাক্ত ও কারণ জানতে পারছি এবং সে অনুযায়ী দ্রুত সমাধানও করতে পারছি। ভবিষ্যতে আমরা এই প্রযুক্তি আরও ব্যবহার বাড়াতে বিভিন্ন কর্মপরিকল্পনা হাতে নিয়েছি।
 

উল্লেখ্য, চলতি বছর ১২ জুলাই ইএসআরই-এর ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট জ্যাক ডেঞ্জারমন্ড ভার্চুয়াল গ্রাহক সম্মেলনের সাধারণ অধিবেশনে স্পেশাল অ্যাচিভমেন্ট ইন জিআইএস (এসএজি) অ্যাওয়ার্ড অর্জনকারীদের নাম ঘোষণা করেন।

 

 

 

 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *