বক্সিং ডে টেস্টে জয় চান রুট | খেলা

বক্সিং ডে টেস্টে জয় চান রুট | খেলা

<![CDATA[

বক্সিং ডে টেস্টকে সামনে রেখে ভিন্ন প্রেক্ষাপটে নিজেদের প্রস্তুত করছে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড। টানা দুই হারের ক্ষত ভুলে বছরের শেষ টেস্টটাকে রাঙাতে চান ইংলিশ কাপ্তান জো রুট। বলছেন, এখান থেকেও অ্যাশেজের ছাইদানি বাগিয়ে নেওয়া সম্ভব। অন্যদিকে এ ম্যাচ দিয়ে আবারো অজি অধিনায়ক হিসেবে ফিরছেন প্যাট কামিন্স। ইংল্যান্ডের কাছ থেকে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার ইঙ্গিত মিললেও এ ম্যাচেই সিরিজ নিশ্চিত করার লক্ষ্য অলরাউন্ডার ক্যামেরন গ্রিনের।

ব্রিসবেনের গ্যাবায় শুরু, ইংল্যান্ডের ভাগ্য পরিবর্তন হয়নি অ্যাডিলেড ওভালেও। সাদা পোশাকের মর্যাদার অ্যাশেজে ইংলিশদের হতাশার গল্প যেন দীর্ঘ থেকে হচ্ছে আরও দীর্ঘতর। দুশ্চিন্তার ঘেরটোপে আচ্ছন্ন থ্রি লায়নদের ত্রাতা হবেন কে? মেলবোর্নে তবে কি দেখা মিলবে নতুন সূর্যের?

সিরিজে টিকে থাকতে হলে তার বিকল্প নেই কোনো। কারণ এ ম্যাচটা হারলেই যে সব শেষ। অ্যাশেজের ছাইদানি ধরে রাখবে অজিরা। প্রথম দুই টেস্টে ব্যাটিংটাই ভুগিয়েছে বেশ। গেলো কয়েকদিন তাই বিশেষ কাজ হচ্ছে এই জায়গায়। আশার পালে হাওয়া দিচ্ছেন স্বয়ং ইংলিশ কাপ্তান। বলছেন, এর আগেও খাদের কিনারা থেকে বহুবারই নিজেদের সামর্থ্য প্রমাণ করেছে তার দল। দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া ইংলিশরা প্রত্যাবর্তনের গল্প লিখতে চান আরও একবার।

রুট বলেন, দেখুন এই দলটার সামর্থ্য নিয়ে কারো কোনো সন্দেহ নেই। ব্যাটিং নিয়ে অনেক আলোচনা হচ্ছে। কিন্তু এই দুই টেস্ট বাদ দিলে পুরো বছর জুড়ে আমরা অসাধারণ ক্রিকেট খেলেছি। তৃতীয় টেস্টের আগে বেশ কিছু টেকনিক্যাল বিষয়ে কাজ করেছি। সিরিজটা এখনও শেষ হয়ে যায়নি। দলের প্রতি আমার আস্থা আছে, এখান থেকে শুধু সামনে এগুতে চাই।

আরও পড়ুন: বেতন নিয়ে সুখবর পেল নারী ক্রিকেটাররা

ইংলিশদের ঠিক বিপরীত অবস্থানে যেন অজি শিবির। আপদকালিন দায়িত্ব নিয়েই দলকে গুছিয়ে নিয়েছেন স্টিভ স্মিথ। এ ম্যাচে দলকে দেখতে চান আরও ক্ষুরধার। তবে প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড বলেই সতর্কতায় পাচ্ছে বাড়তি মাত্রা। অলরাউন্ডার ক্যামেরন গ্রিন চান সব চাপ সামলে এ ম্যাচেই সিরিজ নিশ্চিত করতে। গ্রিনের ভাষ্য, ইংল্যান্ডের সাম্প্রতিক পারফর্মেন্স নিয়ে আমরা ভাবছি না। ওরা বিশ্বমানের দল। যে কোনো পরিস্থিতিতে ঘুরে দাঁড়াতে পারে। তাই আমারা আমাদের দুর্বল দিকেই বেশি নজর দিচ্ছি। অ্যাডিলেডের ম্যাচটা আরো দাপুটে জেতা উচিৎ ছিলো। শেষ দুই টেস্ট নির্ভার হয়ে খেলতে চাই। সে জন্য এই ম্যাচে জয়ের কোনো বিকল্প নাই।

অ্যাশেজের ইতিহাসে ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে পড়ে এর আগে কখনই সিরিজ জিতেনি ইংল্যান্ড। মেলবোর্নে বস্কিং ডে টেস্ট রোববার কি সেই ইতিহাস পাল্টাতে পারবে সফরকারী শিবির?

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *