পঞ্চগড়ে ৩৩ নদী পরিণত মরা খালে | বাংলাদেশ

পঞ্চগড়ে ৩৩ নদী পরিণত মরা খালে | বাংলাদেশ

<![CDATA[

পর্যাপ্ত পানির অভাবে পঞ্চগড়ে ৩৩ টি নদী স্বাভাবিক নাব্যতা হারিয়ে মরা খালে পরিণত হতে চলেছে। নদীগুলোতে পানির স্বাভাবিক প্রবাহ কমে আসায় জেলার পানির স্তরও ক্রমান্বয়ে নিচে নেমে যাচ্ছে।

উজান থেকে বেয়ে আসা পঞ্চগড়ের নদীগুলোতে পানির স্বাভাবিক প্রবাহ না থাকায় কৃষি, মৎস্য ও জীববৈচিত্র্যে বিরুপ প্রভাব পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা। দেশের উত্তরের প্রবেশ মুখ পঞ্চগড়। গত ক’বছর আগেও জেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া করতোয়া, তালমা, ডাহুক, বেরং নদীতে পানির স্বাভাবিক প্রবাহ ছিল। স্থানীয় জেলেরা নদী কেন্দ্রিক মাছ ধরে জেলার মানুষের আমিষের চাহিদা পূরণ করতো। এছাড়া জেলার পাথর শ্রমিকদের একটি অংশ উজান থেকে বেয়ে আসা নদীতে নুড়ি পাথর তুলে জীবিকা নির্বাহ করতো।

ভূতত্ত্ববিদরা বলছেন, নদীর তলদেশ ভরাট ও স্বাভাবিক ক্ষয় না হওয়ায় জেলার নদীগুলো স্বাভাবিক নাব্যতা হারিয়ে ফেলেছে। একই কারণে জেলার ছোট অন্য নদীগুলোও নাব্যতা হারিয়ে এখন মরা খালে পরিণত হয়েছে।

উজান বেয়ে আসা নদীতে ভেসে আসা নুড়ি পাথর তোলা পাথর শ্রমিক আবুল কালাম জানান, নদীতে পানি না থাকায় পাথর ভেসে আসছেনা। এতে পাথরও তোলা যাচ্ছে না।

মাছ ধরা জেলে মুসলিম জানান, নদীতে পানি কমে আসায় দেশীয় প্রজাতির মাছ পাওয়া যায় না।

স্থানীয় চাষী আব্দুল হালিম বলেন,নদীতে পানি কমে যাওয়ার কারণে নদী পাশ্ববর্তী এলাকা গুলোতে চাষাবাদ ভালো হচ্ছে না ।

পঞ্চগড় পাথারাজ সরকারি কলেজের ভুগোল ও পরিবেশ বিভাগের প্রভাষক আলতাফ হোসেন সময় নিউজকে জানান, জনসংখ্যা বৃদ্ধি ও নদীর আশপাশের ভুখন্ডগুলো চাষের আওতায় আনায় নদী গুলো ভরাট হয়ে যাচ্ছে।

পঞ্চগড় পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ হাফিজুল ইসলাম সময় নিউজকে জানান, পঞ্চগড়ের অধিকাংশ নদীই মৌসুমী নদী হওয়ায় শুধু বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টিপাতের ওপর নদীর নাব্যতা নির্ভর করে। দীর্ঘদিন ধরে নদী খনন না করায় নদী গুলো ভরাট হয়ে গেছে। নদীর নাব্যতা ফেরাতে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় ১৪৬ কি.মি. নদী খনন করা হয়েছে। আর ২৪৪ দশমিক ২০ কি.মি. নদী খননের প্রস্তাব সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।
 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *