নিষেধাজ্ঞার প্রতিক্রিয়ায় দুইটি ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ উ.কোরিয়ার | আন্তর্জাতিক

নিষেধাজ্ঞার প্রতিক্রিয়ায় দুইটি ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ উ.কোরিয়ার | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা দেয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই উত্তর কোরিয়া শুক্রবার অন্তত দুটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র করেছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা।

 গত দুই সপ্তাহের মধ্যে এটি উত্তর কোরিয়ার তৃতীয় পরীক্ষা। আল জাজিরা জানিয়েছে নিষেধাজ্ঞার জবাবে উত্তর কোরিয়ার এবারের প্রতিক্রিয়া বেশ শক্তিশালী বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক বিশ্লেষকরা।

 

আল জাজিরা জানিয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফস অফ স্টাফ বলেছেন  তারা উত্তর কোরিয়ার পশ্চিম উপকূলে উত্তর পিয়ংগান প্রদেশ থেকে পূর্ব দিকে উৎক্ষেপণ করা দুটি স্বল্প-পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (এসআরবিএম) শনাক্ত করেছে।

 

জাপানের উপকূলরক্ষীরাও জানিয়েছেন এটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র হতে পারে। এদিকে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় জাপানের মন্ত্রীপরিষদ সচিব হিরোকাজু মাতসুনো জানিয়েছেন, ‘উত্তর কোরিয়ার চলমান সামরিক কার্যকলাপ, যার মধ্যে বারবার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ, জাপান ও অঞ্চলের শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য হুমকি এবং বিশ্বের জন্য অত্যন্ত উদ্বেগের বিষয়।’

 

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রাক্তন নৌবাহিনীর কর্মকর্তা এবং  সিউলের কিয়ংনাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কিম ডং-ইউপ জানান, উত্তর কোরিয়া আগে মোতায়েন করা ‘এসআরবিএম’ যেমন ‘কে এন ২৩’  অথবা ‘কে এন ২৪’ ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করে থাকতে পারে।

 

তিনি আরও জানান, এটি তাদের চলমান শীতকালীন অনুশীলনে জন্যে করে থাকতে পারে। সেই সঙ্গে এই পদক্ষেপের মাধ্যমে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে একটি বার্তা পাঠানোর প্রক্রিয়া এটি’।

 

এর আগে  দুইবার হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোয় উত্তর কোরিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষায় সহায়তা ও প্রত্যক্ষ মদদের জেরে উত্তর কোরিয়ার পাঁচ নাগরিক এবং রাশিয়ার তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে বাইডেন প্রশাসন।

 

এছাড়াও, সিরিজ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোয় দেশটির বিরুদ্ধে কঠোর নিষেধাজ্ঞা দিতে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ওয়াশিংটন।উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা দুই কোরিয়ার সম্পর্কের আরও অবনতি ঘটাতে পারে বলেও উদ্বেগ প্রকাশ করেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন। তবে পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে শান্তি প্রতিষ্ঠায় তার সরকার হাল ছাড়বে না বলেও জানান দক্ষিণ কোরীয় প্রেসিডেন্ট।

 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *