ডিজিটাল অ্যাপের ঋণ কার্যক্রম অবৈধ | বাণিজ্য

ডিজিটাল অ্যাপের ঋণ কার্যক্রম অবৈধ | বাণিজ্য

<![CDATA[

সম্প্রতি রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার (আরবিআই) এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, ভারতের অ্যাপের মাধ্যমে চালুকৃত ‘কুইক লোন’, ‘ইন্সট্যান্ট লোন’, ‘ইজি লোন’- এমন সুবিধা দেওয়া প্রায় ১ হাজারের উপরে অ্যাপ রয়েছে। এ সকল অ্যাপের মধ্যে ৬শ’র বেশি অ্যাপই অবৈধ বলে জানিয়েছে আরবিআই।

ভারতে জনপ্রিয়তা বাড়ছে ডিজিটাল লোনের। এর সাথে সাথেই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে গ্রাহক ঠকানোর ঘটনা। ডিজিটাল লোন দেয় এমন অনেক অ্যাপ কোনও নিয়ম নীতি না মেনেই আর্থিক লেনদেন করে বলে অভিযোগ ওঠে।

 

এ ব্যাপারে সবিস্তারে খোঁজ নেওয়ার জন্য গত জানুয়ারিতে একটি ‘ওয়ার্কিং গ্রুপ’ তৈরি করে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। সেই গ্রুপের রিপোর্টেই দাবি করা হয়েছে, দেশে বিভিন্ন অ্যাপ স্টোরে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের উপযোগী ঋণ দেওয়ার এমন ৬ শ’র বেশি অ্যাপ রয়েছে যা রিজার্ভ ব্যাঙ্কের দৃষ্টিতে অবৈধ। এগুলি রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নীতি মেনে চলে না।

 

তবে কোন কোন অ্যাপ ওই তালিকায় রয়েছে তা রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়নি। তবে বলা হয়েছে, ১ জানুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে সমীক্ষা করে দেখা গিয়েছে, ভারতে মোট ৮১টি অ্যাপ স্টোর রয়েছে যেখানে ওই বিপজ্জনক অ্যাপগুলি পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন- লবণ আমদানির সিদ্ধান্তে চাষিরা হতাশ

এখন পর্যন্ত ২০২০ জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের মার্চ পর্যন্ত মোট ২,৫৬২টি অভিযোগ পায় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। এই সব অভিযোগ খতিয়ে দেখা যায়, বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই অ্যাপ ব্যবহারকারী ব্যক্তি আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন। অনেক ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে, তারা না জেনেই এমন সংস্থার থেকে ঋণ নিয়েছেন যা রিজার্ভ ব্যাঙ্কের অনুমোদনপ্রাপ্ত নন ব্যাঙ্কিং ফিনান্সিয়াল কোম্পানি (এনবিএফসি) নয়।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *