চৌমুহনীতে ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট দেখেই মন্দিরে হামলা: র‌্যাব | বাংলাদেশ

চৌমুহনীতে ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট দেখেই মন্দিরে হামলা: র‌্যাব | বাংলাদেশ

<![CDATA[

ফেসবুকের উসকানিমূলক পোস্ট দেখেই নোয়াখালীর চৌমুহনীতে মন্দিরে হামলা করে দুষ্কৃতিকারীরা।

ভাঙচুর করেই ক্ষান্ত হয়নি তারা। বিক্রির জন্য পরিকল্পনা করেই লুট করে মূল্যবান সম্পদও। সিসিটিভির ফুটেজে মিলেছে সত্যতা। এ ঘটনায় জড়িত ৩ জনকে আটক করা হয়েছে।

পনেরো সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফুটেজ দেখলেই বোঝা যায় ১৫ অক্টোবর কী ঘটেছিল নোয়াখালীর চৌমুহনীর মন্দিরে মন্দিরে। দৃষ্কৃতিকারীরা কেবল হামলা আর ভাঙচুর করেই ক্ষান্ত হয়নি, লুট করেছে মন্দিরের মূল্যবান জিনিসপত্রও।

 

আরও পড়ুন: পূজামণ্ডপে হামলা: বাবু কারাগারে

 

ঘটনার পরেই অভিযানে নামে র‌্যাব। ভিডিও ফুটেজে হলুদ ব্যাগ হাতে মালামাল নিয়ে যাওয়া ওই ব্যক্তির নাম মনির হোসেন। তিনি এখন র‌্যাব হেফাজতে রয়েছে। এছাড়াও আটক করা হয়- জাকের হোসেন, মো. রিপন ও নজরুল ইসলাম নামে তিন জনকে। তারা সবাই স্থানীয় বাসিন্দা। র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে হামলার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা। পরে পরিকল্পনা করে লুট করা মালামাল এবং তা বিক্রিও করা হয়।

র‌্যাব মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, গ্রেপ্তারকৃত মনির হামলার কথা প্রাথমিকভাবে আমাদের কাছে বলেছেন। জাকির রাব্বী ও রিপন এ হামলার সঙ্গে জড়িত। আর সোহাগ যার সঙ্গে যোগাযোগ করে লুট হওয়া মালামাল বিক্রি করার প্রক্রিয়ায় ছিল তারা।    

একটি মহল সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করে পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছিল সেই প্রচারণায় উদ্বুদ্ধ হয়েই হামলা ও লুটপাটে অংশ নেন আটককৃতরা।

র‌্যাবের এ কর্মকর্তা আরও বলেন, প্রাথমিকভাবে আমরা জানতে পেরেছি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উসকানিমূলক বিভিন্ন প্ররোচনা থেকেই হামলায় অংশ নেয়। 
 

গ্রেপ্তারকৃতদের কোনো রাজনৈতিক সম্পৃক্ততা নেই বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *