ঘনিষ্ঠ বন্ধু থেকে শত্রু মেসি-নেইমার! | খেলা

ঘনিষ্ঠ বন্ধু থেকে শত্রু মেসি-নেইমার! | খেলা

<![CDATA[

লাতিন আমেরিকার দুই ফুটবল পরাশক্তি ও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনা। তবে দল ছাপিয়েও দারুণ বন্ধুত্ব লিওনেল মেসি এবং নেইমারের। বার্সেলোনায় একসঙ্গে কাটিয়েছেন বহুদিন। এরপর এখন আবার থিতু হয়েছেন পিএসজিতে।

পুরনো ক্লাব বার্সেলোনার পাট চুকিয়ে প্যারিসে থিতু হওয়ার পেছনে ‘বন্ধু’ নেইমারের অবদানের কথা জানিয়েছিলেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা লিওনেল মেসি। জানা গিয়েছিল, প্রিয় বন্ধুকে প্যারিসে আনার পেছনে অনুঘটক ছিলেন খোদ নেইমার! এছাড়া পিএসজির হয়ে মেসির গোলখরা কাটানোর পর তার থেকেও বেশি উদযাপন করতে দেখা গেছে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডকেই।

তবে এবার পাওয়া গেল দুঃসংবাদ। জানা গেছে, মেসি আর নেইমারের সম্পর্কটা আগের মতো আর নেই! বার্সেলোনার সাংবাদিক শাভি তোরেসের দাবি, তাদের দুজনার সম্পর্ক আগের মতো আর বন্ধুত্বপূর্ণ নয়।

মেসি পিএসজিতে থিতু হওয়ার পর সমর্থক এমনকি সমালোচকরাও বলতে বাধ্য হয়েছিল, মেসি-নেইমার এবং এমবাপ্পে মিলে বিশ্বের সেরা আক্রমণভাগ এখন পিএসজির। ফুটবল ভক্তরাও এই ত্রয়ীর রসায়ন দেখতে মুখিয়ে ছিল। কিন্তু মাঠের লড়াইয়ে তেমন কিছুর দেখা মেলেনি। একসময় তো মেসির কারণে নিজের অবস্থান হালকা হওয়ার আশঙ্কায় এমবাপ্পের ক্লাব ছাড়ার খবর ছিল ‘ওপেন সিক্রেট’। এরপর নেইমার-এমবাপ্পের বিরোধ সামনে আসে। সবশেষ এলো আরও তিক্ত খবর।

আর খবরটা এমন এক সময়ে সামনে এলো, যখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে ম্যানসিটির কাছে হারের পর রোষের মুখে পিএসজি। অবশ্য ক্লাবটির এমন অবস্থার পেছনে আর্জেন্টাইন কোচ মরিসিও পচেত্তিনোর দায়ও কম নয়। লিগে প্যারিসের জায়ান্টদের অবস্থান শক্ত হলেও মাঠের খেলায় মন ভরছে না কারোরই।

আরও পড়ুন : বিশ্বকাপ খেলা হবে না ইতালি কিংবা পর্তুগালের

খবরটা এমন সময়ে আসছে, যখন গত পরশু চ্যাম্পিয়নস লিগে ম্যানচেস্টার সিটির মাঠে হারের পর পিএসজির ফুটবল নিয়ে সমালোচনার কমতি নেই। এর মধ্যে স্প্যানিশ টিভিতে সাংবাদিক শাভি তোরেসের বোমাটা প্যারিসের সমর্থকদের উদ্বেগ আরও বাড়াবে।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) লিওনেল মেসি, নেইমার জুনিয়র ও কিলিয়ান এমবাপ্পেকে নিয়েও ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে হেরেছে পিএসজি। অথচ তাদেরই কিনা মৌসুমের শুরুতে শিরোপার অন্যতম দাবিদার বানিয়ে দিচ্ছিলেন অনেকে। ফরাসি জায়ান্টদের হার ২-১ গোলে।

ম্যানচেস্টার সিটির জন্য এটি প্রথম লেগে হারের প্রতিশোধও বটে। পার্ক দেস প্রিন্সেসে আগের দেখায় ২-০ গোলে হেরেছিল পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা।মেসি-নেইমার-এমবাপ্পে ত্রয়ী এদিন ছিলেন নিষ্ফলা। ফলাফল ম্যানসিটির গতিময় প্লেসিং-অ্যাটাকিংয়ে ধরাশায়ী প্যারিসিয়ানরা। স্কোরলাইন বলছে ব্যবধান ২-১। তবে সিটির পক্ষে সেই ব্যবধানটা আরো বড় হলেও থাকতো না অবাক হওয়ার কিছু। মাউরিসিও পচেত্তিনোর ৪-৩-৩ কৌশলের টেক্কা গার্দিওলা দিয়েছেন মাহারেজ-সিলভা-স্টার্লিংকে দিয়ে।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *