গ্রুপ সেরা হয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে আবাহনী | খেলা

গ্রুপ সেরা হয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে আবাহনী | খেলা

<![CDATA[

পিছিয়ে থেকেও ব্রাজিলিয়ান ডোরিয়েলটনের জোড়া গোলে স্বাধীনতা কাপে রহমতগঞ্জকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে ঢাকা আবাহনী। এ জয়ের ফলে গ্রুপ সেরা হয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে পা রাখলো আকাশি-নীল জার্সিধারীরা।

শেষ আটের লড়াইয়ে আবাহনীর প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।
 

জিতলেই কোয়ার্টার ফাইনাল- এমন সমীকরণে মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) জায়ান্ট কিলারখ্যাত রহমতগঞ্জের বিপক্ষে মাঠে নামে আবাহনী। ম্যাচের শুরুতেই আধিপত্য বিস্তার করে আবাহনী। তবে এক পর্যায়ে বলের দখল নিয়ে বেশ ক’টি আক্রমণ শানায় রহমতগঞ্জ। ১৩তম মিনিটে ভালো সুযোগও তৈরি করে পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। কিন্তু হাসানের পাস থেকে ঘানার ফরোয়ার্ড ফিলিপের শট চলে যায় পোস্টের বাইরে দিয়ে।
 

দুই মিনিট পরই লিড নেয় রহমতগঞ্জ। প্লেসিং শটে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন এনামুল হোসেন। পিছিয়ে পড়ে অ্যাটাকিং ফুটবল খেলতে থাকে আবাহনী। ডি বক্সে কলিন্দ্রেসকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় মারিও লেমসের শিষ্যরা। স্পট কিক থেকে দলকে সমতায় ফেরান ব্রাজিলিয়ান ডোরিয়েলটন। ম্যাচের ২৯তম মিনিটে সুযোগ পেয়েও হাতছাড়া করেন রাকিব হোসেন। এই উইঙ্গারের ফিনিংশ দুর্বলতায় আর এগিয়ে যাওয়া হয়নি আবাহনীর।
 

৪১তম মিনিটে পেনাল্টি পেয়েও তা কাজে লাগাতে পারেনি রহমতগঞ্জ। টেট্টির শট রুখে দেন আবাহনীর গোলরক্ষক মেহেদি হাসান। বিরতির পর আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে ম্যাচ জমে ওঠে। তবে বলের দখল নিয়ে প্রতিপক্ষের রক্ষণ দেয়াল ভাঙতে অলআউট ফুটবল খেলে আকাশি-নীলরা। তাই তো ৫১তম মিনিটে দারুণ ব্যাকহিলে নিজের জোড়া গোল পূরণ করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ডোরিয়েলটন।
 

আরও পড়ুন: হারের বৃত্তে আর্সেনাল
 

এরপর ৭০তম মিনিটে আবারও পেনাল্টি পায় আবাহনী। এবার গোল করতে বিন্দুমাত্র ভুল করেননি আরেক ব্রাজিলিয়ান রাফায়েল। তাতেই স্কোর লাইন দাঁড়ায় ৩-১। এদিন আবাহনীর হয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামলেও বিশ্বকাপ খেলা কলিন্দ্রেসের পারফরম্যান্স ছিলো একেবারেই বিবর্ণ। রেফারি শেষ বাঁশি বাজতেই জয়ের উল্লাসে মেতে ওঠে মারিও লেমস বাহিনী। এ জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ সেরা হয়ে শেষ আটের টিকিট নিশ্চিত করলো আবাহনী। ২ ম্যাচে রহমতগঞ্জের পয়েন্ট শূন্য।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *