গলা কেটে হত্যার পর ক্ষত-বিক্ষত করা হয় শরীফের লাশ | বাংলাদেশ

গলা কেটে হত্যার পর ক্ষত-বিক্ষত করা হয় শরীফের লাশ | বাংলাদেশ

<![CDATA[

নরসিংদীর শিবপুরে মো. শরীফ মিয়া নামের এক ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যার পর ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মুখমণ্ডল ক্ষত-বিক্ষত করার ঘটনা ঘটেছে। বুধবার (৩ নভেম্বর) ভোরে উপজেলার সাধারচর ইউনিয়নের কালোয়ারকান্দা গ্রাম থেকে তার বিভৎস লাশ উদ্ধার করে শিবপুর থানার পুলিশ। তবে কে বা কারা কী কারণে তাকে এমন নৃশংস ঘটনা ঘটিয়েছে তা বলতে পারছেন না কেউ।

নিহত মো. শরীফ মিয়া (৪০) নরসিংদীর শিবপুরের উপজেলার সাধারচর ইউনিয়নের তাতেরকান্দী গ্রামের মোহাম্মদ ইসমাইলের ছেলে।

স্থানীয় লোকজন ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানান, গতকাল মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) সন্ধ্যার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন মো. শরীফ মিয়া। রাতে বাড়িতে আর না ফেরায় আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় তাকে ব্যাপক খোঁজাখুঁজি করেন পরিবারের সদস্যরা। একপর্যায়ে বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দূরে কালোয়ারকান্দা এলাকায় তার গলাকাটা লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়। এ সময় তার মুখমণ্ডল ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ক্ষত-বিক্ষত ছিল।

খবর পেয়ে শিবপুর থানা পুলিশের উপপরিদর্শক মোক্তার হোসেন ঘটনাস্থলে যান। পরে বুধবার ভোরে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন : নারী সহকর্মীকে যৌন হয়রানি, প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত

নিহতের ছোটভাই মো. জুয়েল মিয়া জানান, আমার বড়ভাই মো. শরীফ মিয়ার সঙ্গে কারো কোনো শত্রুতা আছে এমন খবর আমি জানি না। কোনোপ্রকার ক্ষোভ থেকেই তাকে এমন নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছি আমরা। এই ঘটনায় আমরা মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

পুলিশ বলছে, নিহত মো. শরীফ মিয়া তার এলাকায় ডাকাত শরীফ নামে পরিচিত ছিল। তার নামে হত্যা, ডাকাতি, বিস্ফোরকসহ অন্তত পাঁচটি মামলা আছে। ২০১৮ সালে শিবপুরের বন্যার বাজার এলাকায় মকবুল ডাকাত হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় চার্জশিটভুক্ত একজন আসামি সে। তবে কে বা কারা ঠিক কি কারণে তাকে এমন নৃশংসভাবে হত্যা করেছে তা এখনও নিশ্চিত নয় পুলিশ।

উপপরিদর্শক মোক্তার হোসেন বলেন, মো. শরীফ মিয়া নামের ওই ব্যক্তিকে গলাকেটে হত্যা ও নৃশংসভাবে মুখমণ্ডল ক্ষতবিক্ষত করা হয়েছে। আজ ভোরের দিকে তার লাশ উদ্ধারের পর নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *