খানাখন্দে ভরা রাবির অভ্যন্তরীণ সড়ক | শিক্ষা

খানাখন্দে ভরা রাবির অভ্যন্তরীণ সড়ক | শিক্ষা

<![CDATA[

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) তৃতীয় বিজ্ঞান ভবন থেকে চারুকলা অনুষদ পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার রাস্তার বেহাল অবস্থা। খানাখন্দে ভরে গেছে পুরো সড়ক। রিকশায় তো দূরের কথা হেঁটে পার হওয়াই মুশকিল এই সড়কে। একই অবস্থা বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ আরও বেশ কয়েকটি সড়কের। এতে করে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের দুইটি আবাসিক হল ও একটি একাডেমিক ভবনের নির্মাণ সামগ্রী আনতে গিয়েই রাস্তাগুলোর এমন অবস্থা। একাডেমিক ভবনের সংকট কাটাতে শহীদ হবিবুর রহমান হলের সামনে একটি ২০ তলা একাডেমিক ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। তৃতীয় বিজ্ঞান ভবনের পাশে ছাত্রীদের জন্য শেখ হাসিনা নামে একটি হল ও মাদারবক্স হলের সামনে ছাত্রদের জন্য শহীদ এ এইচ এম কামারুজ্জামান নামে একটি হলের কাজও শুরু হয়েছে।
 

সরেজমিন দেখা গেছে, মালবাহী ভারী ট্রাক ক্যাম্পাসের ভেতরে আসা যাওয়া করছে নিয়মিত। আর এই কারণেই রাস্তার এমন হাল। তৃতীয় বিজ্ঞান ভবন থেকে চারুকলা অনুষদ পর্যন্ত সড়কটি সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
 

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ বলেন, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্বার্থেই এসব উন্নয়ন কাজ। তারপরেও এখন যে ভোগান্তিটা হচ্ছে তাতে আমি নিজেও মর্মাহত। কিন্তু আপাতত এভাবেই উন্নয়ন প্রকল্পের বেজমেন্টের কাজ শেষ করতে চাই। তাই কয়টা দিন একটু কষ্ট সহ্য করতে হবে সবাইকে। তবে কবে নাগাদ রাস্তাগুলো ঠিক হবে সে বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু বলতে পারেননি প্রধান প্রকৌশলী।

আরও পড়ুন : চবির ‘সি’ ইউনিটে ৫২ শতাংশই পাস
 

খোঁজ নিয়ে আরও জানা গেছে, প্রকল্পের শুরুতে যে ডিপিপি (উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা) দেওয়া হয় তাতে প্রধান সড়ক থেকে প্রকল্প এলাকায় মালামাল নিয়ে যাওয়ার খরচের বিষয়টি উল্লেখ করেনি প্রকৌশল দপ্তর। এতে ক্যাম্পাসের যোগাযোগ অবকাঠামোর ক্ষতি প্রশমন করে মালামাল কীভাবে প্রকল্প এলাকায় নিয়ে আসা হবে তাও উল্লেখ করা হয়নি।
 

ডিপিপিতে এ বিষয়ে স্পষ্ট নির্দেশনা না থাকায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ভারী ট্রাকে করেই মালামাল ক্যাম্পাসের সড়ক ব্যবহার করে প্রকল্প এলাকায় নিয়ে যাচ্ছে। আর এতে করেই সড়কগুলোর এমন হাল হচ্ছে।
 

চারুকলা অনুষদের কয়েকজন শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা হলে তারা জানায়, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নির্মাণ কাজের সামগ্রী যদি ছোট গাড়ি করে ক্যাম্পাসে ঢুকাতো তাহলে এই অবস্থা থেকে আমরা রেহাই পেতাম। তাদের সিদ্ধান্তের ভুলে আমাদের প্রতিনিয়ত কষ্ট করতে হচ্ছে। আমরা এই অবস্থা থেকে দ্রুত উত্তোরণ চাই।
 

শাহীন/

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *