করোনার আখড়া এখন ইউরোপ | আন্তর্জাতিক

করোনার আখড়া এখন ইউরোপ | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

ইউরোপের দেশগুলোয় করোনাভাইরাসে নতুন আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার বাড়ছে আশঙ্কাজনকভাবে। সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় রাশিয়ায় প্রায় ৩৮ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন, প্রাণ হারিয়েছেন ১২ শতাধিক।

স্পেনে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় স্থানীয়দের পাশাপাশি পর্যটকদেরও দেওয়া হচ্ছে করোনার টিকা। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় স্পেনে আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ৭ হাজার মানুষ। যা আগের দিনের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ।

অন্যদিকে চলাফেরায় শিথিলতা আনার পরও আক্রান্তে রেকর্ড ছুঁয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, টিকা নিতে অনীহাই দেশগুলোতে সংক্রমণ বাড়ার মূল কারণ।

এদিকে স্পেনে চালু করা হয়েছে ভ্রাম্যমাণ টিকাকেন্দ্র। প্রশাসন বলছে, পর্যটন মৌসুম শুরু হওয়ার পর করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গেল এক সপ্তাহে সংক্রমণের হার ৫২ শতাংশ বেড়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ।

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্তের তালিকায় পাঁচটি দেশের একটি রাশিয়া। টিকা প্রয়োগের পর কয়েক মাস আক্রান্ত ও মৃত্যুহার নিয়ন্ত্রণে থাকলেও গেল সপ্তাহ থেকেই তা ফের বাড়তে শুরু করেছে। এই পরিস্থিতিতে কর্মক্ষেত্র, রেস্তোরা কিংবা শপিং মলে গেলে টিকা সনদ সাথে রাখার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, রাশিয়ার মাত্র ৪০ শতাংশ মানুষ করোনার দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন।

আরও পড়ুন: কানাডার ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায় জরুরি অবস্থা

ইউরোপের আরেক দেশ জার্মানিতে আগের সব রেকর্ড ভেঙে একদিনে ৬৯ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। একই দিনে করোনায় নতুন করে ২৬৬ জনের মৃত্যু চিন্তা বাড়িয়ে দিয়েছে জনমনে। এতদিন শিথিল থাকা করোনার বিধিনিষেধে আবারো কড়াকড়ির সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কেল প্রশাসন। করোনা নিয়ন্ত্রণে নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। এখন থেকে সাধারণ নাগরিকেরা কর্মক্ষেত্রে ও গণপরিবহন ব্যাবহারের ক্ষেত্রে থ্রিজি নিয়ম অনুসরণ করবেন। অর্থ্যাৎ টিকা নেয়া, করোনা থেকে সেরে ওঠা এবং ৪৮ ঘণ্টার কোভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট দেখাতে হবে কর্মজীবি ও গণপরিবহন ব্যাবহারকারীদের।

এছাড়া আয়ারল্যান্ডে আক্রান্তের পাশাপাশি মৃত্যু হারও বাড়ছে সমানতালে, আইসিইউতেও করোনা রোগীর সংখ্যা গেল এক বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যেও সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে। গেল দু’সপ্তাহে প্রায় ৯০০ স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। কয়েক মাস আগেও দেশটির করোনা পরিস্থিতি ছিল নিয়ন্ত্রণে। খুলে দেওয়া হয়েছিল রেস্টুরেন্ট, পানশালাগুলো।

ইউরোপের পাশাপাশি এশিয়ার কয়েকটি দেশেও বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। সংক্রমণের নতুন রেকর্ডের দ্বারপ্রান্তে দক্ষিণ কোরিয়া। চলাফেরায় শিথিলতা আনার পরই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুহার। দেশটিতে সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৩০০ জন। যা আগের দিনের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। সংক্রমণের লাগাম টানতে ইতোমধ্যে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশু-কিশোরদের টিকা দেওয়া শুরু করেছে দেশটির সরকার।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *