কক্সবাজারে আওয়ামী লীগ নেতাদের গুলি করে পালাল দুর্বৃত্তরা | বাংলাদেশ

কক্সবাজারে আওয়ামী লীগ নেতাদের গুলি করে পালাল দুর্বৃত্তরা | বাংলাদেশ

<![CDATA[

কক্সবাজার সদরের ঝিলংজায় ‘নির্বাচনী প্রতিপক্ষের’ হামলায় জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ও তার ভাই ইউপি নির্বাচনে সদস্য প্রার্থীসহ তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

কক্সবাজার সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বিপুল চন্দ্র দে জানান, শুক্রবার (৫ নভেম্বর) রাত ১০ টায় কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের লিংকরোড স্টেশনে এ ঘটনা ঘটেছে।

আহতরা হলেন, কক্সবাজার সদর উপজেলা ঝিলংজা ইউনিয়নের দক্ষিণ মুহুরী পাড়ার মৃত জামাল আহমদ সিকদারের ছেলে জহিরুল ইসলাম সিকদার (৫৩) ও তার ভাই কুদরত উল্লাহ (৪৫) এবং একই এলাকার মৃত ফয়েজ আহমদের ছেলে জহির সিকদার (৬৫)।

জহিরুল ইসলাম সিকদার জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি এবং কুদরত উল্লাহ সিকদার ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান সদস্য ও আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্টিতব্য ইউপি নির্বাচনে সদস্য প্রার্থী।

স্থানীয়দের বরাতে পরিদর্শক বিপুল বলেন, রাতে কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ইউনিয়নের লিংকরোড স্টেশনে ব্যক্তিগত অফিসে বসে স্থানীয় ইউপি নির্বাচনে সদস্য প্রার্থী কুদরত উল্লাহ কর্মী-সমর্থক ও আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে নির্বাচনী আলাপ-আলোচনা করছিলেন। এক পর্যায়ে মোটর সাইকেল যোগে এসে একদল দূর্বৃত্ত কুদরত উল্লাহ সিকদারকে লক্ষ্য করে কয়েকটি গুলি করে পালিয়ে যায়। এতে ৩ জন গুলিবিদ্ধ হয়। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে।
 

জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিউল্লাহ আনসারি বলেন, গত কয়েকদিন ধরে ঝিলংজা ইউপি নির্বাচনে ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী লিয়াকত আলী ও তার কর্মী-সমর্থকরা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কুদরত উল্লাহ’র কর্মী-সমর্থকদের নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় লিয়াকতের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী এ হামলা চালিয়েছে।

 

আরও পড়ুন: প্রতিপক্ষের হামলায় হত্যা মামলার আসামি নিহত

 

মূলত নির্বাচনে প্রভাব বিস্তার ও প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের আতংকিত করে এলাকা ছাড়া করতে এ হামলা সংঘটিত হয়েছে বলে দাবি করেন জেলা শ্রমিক লীগের এ নেতা।
এদিকে রাতে জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতিসহ তার ভাই ইউপি নির্বাচনে সদস্য প্রার্থী কুদরত উল্লাহ’র হামলার প্রতিবাদে শ্রমিক লীগের নেতাকর্মীরা শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। রাতে লিংকরোডে ইউপি সদস্য প্রার্থী কুদরত উল্লাহ’র কর্মী-সমর্থকরা ঘটনার প্রতিবাদে সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ এবং বিক্ষোভ মিছিল করেছে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) শাহীন মো. আব্দুর রহমান বলেন, রাতে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ৩ জনকে হাসপাতালে আনা হয়। এদের মধ্যে কুদরত উল্লাহ’র অবস্থা আশংকাজনক। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
 

পুলিশের পরিদর্শক বিপুল বলেন, ‘কারা, কী কারণে এ হামলা চালিয়েছে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।’
ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে বলে জানান তিনি।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *