ইরানের পরমাণু চুক্তি: প্রথম দিনের আলোচনা ‘ইতিবাচক’ | আন্তর্জাতিক

ইরানের পরমাণু চুক্তি: প্রথম দিনের আলোচনা ‘ইতিবাচক’ | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত ইরানের ঐতিহাসিক পরমাণু চুক্তি কার্যকরে পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে ফের আলোচনা শুরু করেছে তেহরান।

দীর্ঘ ৫ মাস বিরতির পর অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় শুরু হওয়া ওই বৈঠকে প্রথমদিনের আলোচনায় ইতিবাচক অগ্রগতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন আলোচনায় অংশ নেয়া ইইউ প্রতিনিধি দল। 

শিগগিরই এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলেও প্রত্যাশা তাদের। এদিকে পশ্চিমা দেশগুলোকে ইরানের ফাঁদে পা না দিতে সতর্ক করেছে ইসরাইল। আর তেহরানর হুমকি মোকাবিলায় যুক্তরাজ্য তেল আবিবের পাশে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

এর আগে এক টুইটার পোস্টে ইউরোপীয় পররাষ্ট্র সার্ভিসের উপ-মহাসচিব এররিক মোরা বলেন, ব্যাপক প্রস্তুতিমূলক কাজ চলছে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র সম্ভবত ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের প্রস্তুতি নিচ্ছে, এমন তথ্য জানিয়েছে হতাশা ব্যক্ত করেছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট।

আরও পড়ুন: ভিয়েনায় যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা নয়: ইরান

বিশ্বের ছয়টি শক্তির সঙ্গে সই হওয়া ইরানের পরমাণু চুক্তি পুনরুদ্ধারে ভিয়েনায় আলোচনাকে সামনে রেখে রোববার (২৮ নভেম্বর) তিনি এ মন্তব্য করেছেন।

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের সদিচ্ছা নিয়ে ইসরায়েল খুবই উদ্বিগ্ন। এতে ইরানের পরমাণু কর্মসূচির ওপর অপর্যাপ্ত বিধিনিষেধের বিনিময়ে দেশটিতে কোটি কোটি ডলারের প্রবাহ তৈরি হবে।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য দেশগুলোকে প্রতিটি ক্ষেত্রে আমরা এই বার্তাই আমরা দিতে চাই।

দীর্ঘ পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর ফ্রান্স, রাশিয়া, চীন, যুক্তরাজ্য, জার্মানির অংশগ্রহণে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে আলোচনা সোমবার ভিয়েনায় শুরু হতে যাচ্ছে।

দখলদার ইসরায়েল জোরালোভাবে ইরানের সঙ্গে পরমাণু চুক্তির বিরোধিতা করছে। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রশাসনের অধীন যুক্তরাষ্ট্র চুক্তিটিতে ফিরে যাক, তা চাচ্ছে না ইসরায়েল।

 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *