ইতালির সিসিলিতে টর্নেডোর আঘাতে একজনের মৃত্যু | আন্তর্জাতিক

ইতালির সিসিলিতে টর্নেডোর আঘাতে একজনের মৃত্যু | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

বুধবার (১৭ নভেম্বর) ইতালির সিসিলিতে টর্নেডোর আঘাতে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনায় প্রায় ২৪ জন মানুষ আহতও হয়েছেন। অনেকের বাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং কৃষি জমি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

টর্নেডোর আঘাতে দক্ষিন ইতালির ভূমধ্যসাগর তীরের সিসিলি দ্বীপে ৫৩ বছর বয়সী এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।
 

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে সিসিলি দ্বীপটিতে খারাপ আবহাওয়ার বেশ কয়েকটি ঢেউ আঘাত হানার পর বুধবার আরও ধ্বংসযজ্ঞ ঘটেছে।

মারাত্মক এই  ঘূর্ণিঝড়টি দ্বীপের দক্ষিণ-পূর্বে ত্রেবালেট, সেরামেটা, সান্ট’এলেনা এবং বস্কো জেলাগুলোতে আঘাত হানে ও তাণ্ডব চালায়। রাগুসা প্রদেশে একজন নিহত হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে ইতালিয় মিডিয়া।

৫৩ বছর বয়সী মৃত ওই ব্যক্তি একটি দরজার সঙ্গে ধাক্কা খেয়েছিলেন। সাম্প্রতিক সময়ে দক্ষিণ ইতালির এই দ্বীপ প্রদেশটি ঘনঘন ঝড়ের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। গত কয়েক সপ্তাহে ভূমধ্যসাগর তীরের সিসিলি এবং ক্যালাব্রিয়াতে বারবার চরম বাজে আবহাওয়ার ঘটনার পর মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে তিনজনে।

রিপোর্ট অনুসারে, মৃত লোকটি তার বিপদ বুঝতে না পেরে, প্রবল বাতাসে ক্ষতিগ্রস্ত রেলিং সুরক্ষা করার জন্য তার বাড়ি ছেড়েছিল।

পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে, কারণ রাগুসা এলাকায় বৃষ্টি এবং প্রবল বাতাসের প্রভাবে টেলিফোন সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। উপড়ে পড়া গাছ, ধসে পড়া দেয়াল এবং ব্যবসা ও অবকাঠামোর ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে।

সকাল থেকে রাগুসাতে ঘূর্ণিঝড়ের ধ্বংসযজ্ঞ মোকাবেলায় জাতীয় উদ্ধারকারী সেবাদল কাজ করছে।

সিসিলি প্রদেশে বেশ কয়েক হাজার বাংলাদেশি প্রবাসী বসবাস করেন। শেষ তথ্য পাওয়া পর্যন্ত সকলে ভালো আছেন বলে জানা যায় কমিউনিটি ব্যক্তিদের মাধ্যমে।

বিভিন্ন জলবায়ু বিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠানের তথ্য মতে, ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলকে সবচেয়ে বেশি নাজুক ক্ষতিগ্রস্ত বলয় হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে। যার প্রভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *