ইতালির মনফালকনে বাংলাদেশিদের দুই যুগপূর্তি সংবর্ধনা

ইতালির মনফালকনে বাংলাদেশিদের দুই যুগপূর্তি সংবর্ধনা

হাঁটি হাঁটি পা পা করে ইতালির মনফালকন শহরে বাংলাদেশি কমিউনিটি প্রায় দুইযুগ অতিবাহিত করেছে। দুই যুগের সময়টি স্মরণীয় করার লক্ষে বাংলাদেশ ওয়েল ফেয়ার অ্যান্ড কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের তত্ত্বাবধানে বাংলা স্কুল মনফালকনে গুণীজন সংবর্ধনার আয়োজন করে।

সেই সঙ্গে প্রবাসে জন্ম নেওয়া নতুন প্রজন্মকে মাতৃভাষা শিক্ষা দেওয়া, বাংলাদেশি সংস্কৃতি, ইতিহাসের সঙ্গে পরিচিত করা, সর্বোপরি শিকড়কে যেন ভুলে না যায় সে জন্য বাংলা স্কুল মনফালকনে অবিরাম চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানটি নুরুল আমিন খন্দকারের সভাপত্বিত্বে স্কুলের সাধারণ সম্পাদক মো. জিয়াউর রহমান খান সোহেলের সঞ্চলনায় এবং আব্দুল আজিজ ও মুর্শিদা বেগম হেপীর পরিচালনায় মনোমুগ্ধকর হয়ে ওঠে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান বোরহান (চেয়ারম্যান কাফ ইতালি ফ্লোরেন্স)। বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য মোস্তাফিজুর রহমান বোরহান চেয়ারম্যান কাফ ইতালি, ডা. মো. রাসেল পাদোভা হাসপাতাল, সৈয়দ কামরুল সারোয়ার ভেনিস বাংলা স্কুল, আবুল খায়ের (মরণোত্তর), ফরিদ খান (মরণোত্তর), কামরুল হাসান রাসেল এভিজু বাংলা স্কুল, ব্যাংকার আফজাল আলীসহ আরও অনেকেই সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়। বাংলাদেশ কমিউনিটি ও মনফালকনের মানুষের ভালোমন্দ ও আনন্দ- হাঁসির বিভিন্ন বিষয়গুলো গত কয়েক বছর ধরে বেশ কয়েকবার তুলে ধরেন দেশের শীর্ষ টেলিভিশন সময় টিভি ও সময় নিউজ। কমিউনিটির উন্নয়নে ও সকল ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত থাকায় সময় টেলিভিশনের ইতালি প্রতিনিধি মাকসুদ রহমানকে দেওয়া হয় মিডিয়া ও সাংবাদিকতার জন্য পুরস্কার।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে বাংলা স্কুলের প্রায় শতাধিক ছাত্রছাত্রীদের হাতে নতুন ক্লাসের বাংলা বই তুলে দেওয়া হয়। প্রবাসে বাংলা স্কুলগুলো নতুন প্রজন্মের শিশুদের বাংলা শিখাতে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। অনুষ্ঠান শেষে বাংলাদেশি খাবারের মাধ্যমে অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়।

তাছাড়াও স্কুল পরিচালনা পরিষদ, উপদেষ্টা পরিষদ, শিক্ষার্থী,অভিভাবক, কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ ও সর্বস্তরের বাংলাদেশিরা উপস্থিত ছিলেন অনুষ্ঠানে। বার্ষিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের সম্মাননা মেডেল ও নতুন সেশনের পাঠ্যবই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। সেইসঙ্গে দুইযুগ পূর্তি লোগো সমৃদ্ধ টি-শার্ট দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ আকর্ষণ ছিল অভিভাবকদের হাতের তৈরি দেশীয় বিভিন্ন মজাদার পিঠা। ইতালি মনফালকনে চলমান ২৪ বছরে বাংলাদেশি কমিউনিটির অগ্রগতি, সাফল্য ও পরবর্তী প্রজন্ম কিভাবে সম্মানের সঙ্গে ইতালিতে বেড়ে উঠতে পারে, সে সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করা হয়।

উত্তর-পূর্ব ইতালির সমৃদ্ধ শহর মনফালকনে। ইতালির গরেজিয়া প্রদেশের শহরটি ভেনিস থেকে ১৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন নাৎসী বাহিনীর সদস্যরা শহরটি পুরোপুরি ধ্বংস করে ফেলেছিল। ধীরে ধীরে ষাট থেকে সত্তোরের দশকে শহরটি উন্নয়নের ছোঁয়ায় বদলে যায়। বিশেষ করে মনফালকনে জাহাজ নির্মাণ শিল্প বিশ্ব বিখ্যাত। এই শিল্পে হাজার হাজার বাংলাদেশি শ্রমিকের কর্মসংস্থান গড়ে উঠেছে এখানে। জাহাজ নির্মাণ শিল্পে বাংলাদেশি অনেকগুলো মালিকানা প্রতিষ্ঠানও গড়ে উঠেছে এই শহরে। যা বাংলাদেশের অর্থনীতিতে বিশাল অবদান রাখছে। এখানে প্রায় ৮/১০ হাজার বাংলাদেশি বাস করে।

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *