আরিয়ান ও পরীমনির মামলার মিল-অমিল | বিনোদন

আরিয়ান ও পরীমনির মামলার মিল-অমিল | বিনোদন

<![CDATA[

বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান এবং ঢাকায় চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনি দুজনকেই মাদক মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়। এই দুজনের জামিন নিয়ে বেশ আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে দুই দেশেই।

সবশেষে শনিবার (৩০ অক্টোবর) সকালে জামিনে মুক্ত হন শাহরুখপুত্র আরিয়ান। দুজনের মামলার প্রক্রিয়ায় রয়েছে বেশ মিল।

জামিন: তিনবার জামিন চেয়ে ব্যর্থ হওয়ার পর চতুর্থবার মহানগর দায়রা জজ আদালত থেকে জামিন মেলে পরীমনির। তাকে জামিনের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে ২৬ দিন। শাহরুখপুত্র আরিয়ান খানও তিনবার জামিন চেয়ে পাননি। চতুর্থবারের জামিন মেলেছে তার। জামিনের জন্য তাকে অপেক্ষা করতে হয়েছে ২৭ দিন।

কারাভোগ: ২৭ দিন কারাভোগ শেষে ১ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ৯টার পর গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হন। এ সময় তাকে একনজর দেখার জন্য ছিল ভক্তদের ভিড়। জেল থেকে বের হয়ে সরাসরি তার বনানীর বাসায় যান এ নায়িকা। অন্যদিকে, ২৮ দিন কারাভোগ করতে হয় শাহরুখপুত্রকে। ৩০ অক্টোবর সকাল ১১টায় মুম্বাই আর্থার রোড জেল থেকে বের হন আরিয়ান। জেল থেকে বের হয়ে সোজা মান্নাতে নেওয়া হয় তাকে।

কারামুক্ত: পরীমনির জামিন মঞ্জুর হয় বুধবার। ওইদিন বিকেল ৫টা পর্যন্ত কারা কর্তৃপক্ষ জামিনের কাগজের জন্য অপেক্ষা করেছিল। কিন্তু কাগজ পৌঁছে রাত ৮টায়। সে কারণে বুধবার (৩১ আগস্ট) তিনি কারাগার থেকে বের হতে পারেননি। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছিল।
শাহরুখপুত্র আরিয়ান খানের জামিন হয় বৃহস্পতিবার। জামিনের কাগজ বের হয় শুক্রবার। কারা কর্তৃপক্ষ এদিন বিকেল ৫টা ৩৫ পর্যন্ত অপেক্ষা করেছে, কিন্তু নথি তাদের হাতে পৌঁছায়নি। সময় পার হয়ে যাওয়ায় পরদিন শনিবার (৩০ অক্টোবর) আরিয়ান মুক্তি পান।

আরও পড়ুন: বাড়ি ফিরলেন শাহরুখপুত্র

জামিন বন্ড: চিত্রনায়িকা পরীমনিকে জামিনের বন্ড দিতে হয় ৫০ হাজার টাকা। আর শাহরুখপুত্রকে জামিনের বন্ড দিতে হয় ১ লাখ রুপি। বাংলাদেশি টাকায় তা প্রায় ১ লাখ ১৫ হাজার।

জামিনের শর্ত: চিত্রনায়িকা পরীমনির জামিনের বিশেষ কোনো শর্ত নেই। অন্য আসামিদের জামিনের ক্ষেত্রে যে রকম শর্ত থাকে পরীর ক্ষেত্রেও তাই। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তিনি সক্রিয়। যোগাযোগ আছে মামলার অন্য আসামির সঙ্গেও।
এদিকে শাহরুখপুত্রের জামিনের ক্ষেত্রে ১৪ টি শর্ত দিয়েছেন আদালত। সংবাদমাধ্যমে মামলা সংক্রান্ত কোনো বিবৃতি দিতে পারবেন না, সোশ্যাল মিডিয়াতেও এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য প্রকাশ করতে পারবেন না তিনি। এ ছাড়া জেলমুক্তির পরও সহ-অভিযুক্ত আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুন ধামেচার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন না আরিয়ান। এ ছাড়া প্রতি শুক্রবার মুম্বাইয়ের এনসিবি অফিসে হাজিরা দিতে হবে আরিয়ানকে।
 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *